বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে শিক্ষার্থীরা স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেওয়ার জন্য জার্মানিতে পাড়ি জমায় বর্তমানে বিশ্বের র্যাংকিংয়ে ২৫০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে জার্মানিতে অবস্থিত এবং বাংলাদেশ জার্মান রাষ্ট্রদূত আরো বেশি বাংলাদেশি শিক্ষার্থী জার্মানিতে চাকরির নিয়োগের জন্য মনোনিবেশ করেছেন। 

এ কারণে বাংলাদেশ থেকে জার্মানিতে স্কলারশিপ ভিসা প্রবণতা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং বাংলাদেশ থেকে ইউরোপিয়ান দেশটির এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে লেখাপড়ার সুযোগ পাওয়ার পাশাপাশি এর খরচ অনেক কম হচ্ছে। 

এ কারণেই আমাদের আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করা হবে জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলারশিপ পাওয়ার উপায় কি এই সম্পর্কে। 



জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলারশিপ পাওয়ার উপায়

জার্মানিতে ব্যাচেলর মাস্টার্স এবং পিএইচডি জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে স্কলারশিপ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে এবং গত 10 বছরে জার্মানিতে পড়তে যাওয়া বাংলাদেশীদের কাছে সবচেয়ে প্রিয় সংগঠন হচ্ছে জার্মান একাডেমিক এক্সচেঞ্জ সার্ভিস বা ডাক। 

ডট স্কলারশিপ এর মাধ্যমে বাংলাদেশীদের মধ্যে দারুণ সুযোগ সুবিধা তৈরি করে দিয়েছে এবং বাংলাদেশীরা শিক্ষার্থীরা যেকোনো পছন্দমতো বেছে নিয়ে তার উপরে ডিগ্রী অর্জন করতে পারে এবং এই কোর্সের উপর ভিত্তি করে মাস্টার্স এর মেয়াদ ১ থেকে ২ বছর এবং পিএসজির ম্যাচ তিন বছর থেকে ৩৮ মাস পর্যন্ত হয়ে থাকে। 

এখানে স্কলারশিপ নেওয়ার জন্য আরও একটি ভালো সুবিধা হচ্ছে এখানে আবেদনের জন্য কোনো দেশ বা বয়সের কোন সীমাবদ্ধতা নেই এবং এই স্কলারশিপের আওতায় স্বাস্থ্যবীমা বাবদ প্রতি মাসে ৭৫০ ইউরো এবং মাস্টার্স এর জন্য ১০০০ ইউরো বোনাস দেওয়া হয়। 

জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতা কি কি

জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলারশিপ পাওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই স্নাতকোত্তর ডিগ্রী পাস হতে হবে এ ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ছয় বছর একাডেমিক পিরিওড দেখানো হয়ে থাকে অর্থাৎ ৬ বছরের বেশি একাডেমিক পিরিওড যদি হয় তাহলে জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলারশিপ এর জন্য আবেদন করতে পারবে না। 

বাংলা নাটক পুরোপুরি এছাড়া ভাষাগত দক্ষতার ব্যাপারটি যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে এই কোর্সের ভর্তি করা হয় সাধারণত ডাট স্কলার্শিপ এ আবেদনের জন্য আইইএলটিএস কোর্সটি অবশ্যই করে নিতে হয়। 

এছাড়া মাস্টার্স স্কলার্শিপ এ ভর্তি হওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস হচ্ছে একাডেমিক ডকুমেন্টস এবং তার পাশাপাশি অন্তত দুই বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। 

জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলার্শিপ এ ভর্তির আবেদন করার নিয়ম

জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলার্শিপ এ আবেদনের সেরা উপায় হচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করা অর্থাৎ অনলাইনে ঘাট এর নিজস্ব ওয়েবসাইটে গিয়ে সেখানে আবেদন ফরম ডাউনলোড করে আপনি সেই ফরম পূরণ করতে পারবেন এবং অনলাইনে সাবমিট করে দিতে পারবেন। 

এখানে আবেদনের জন্য বেশ কয়েকটি ধাপ অতিবাহিত করতে হয় প্রথমে নিজস্ব ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন ফরম ডাউনলোড করে নিতে হয় তারপর দ্বিতীয় ধাপে আবেদন ফরম শিক্ষার্থীর নিজস্ব হস্তে স্বাক্ষরসহ একটি সিভি বানিয়ে নিতে হয় এবং তৃতীয় ধাপে মতিভেশন লেটার এখানে আবেদনকারী কাজের অভিজ্ঞতা এবং রেফারেন্স উল্লেখ করতে হবে এবং আবেদনের সাথে গবেষণা প্রস্তাবনা পাঠানো উত্তম এক্ষেত্রে স্কলারশিপে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়গুলো রেফারেন্স করে থাকে। 

এরপরে যে প্রতিষ্ঠান থেকে আপনার ব্যাচেলর ডিগ্রি সম্পন্ন হয়েছে সেই প্রতিষ্ঠানের একটি রিকমেন্ডেশন লেটার সংযুক্ত করতে হবে। 

তারপরে আপনি যে প্রতিষ্ঠানে দুই বছরের ন্যূনতম চাকরির অভিজ্ঞতা আছে সেই প্রতিষ্ঠানের একটি রেফারাল লেটার সংযুক্ত করতে হবে এবং তার সাথে সত্যায়িত স্বাক্ষর থাকতে হবে। 

তাহলেই আপনি জার্মান মাস্টার্স স্কলার্শিপ ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন কিন্তু বিষয় হচ্ছে এই সমস্ত ডকুমেন্টস ছাড়াও বাড়তি আরো ডকুমেন্টস যদি তারা চায় তাহলে সেগুলো আপনাকে সংগ্রহ করে প্রদান করতে হবে। 

আমাদের আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে জার্মানিতে মাস্টার্স স্কলারশিপ পাওয়ার উপায় সম্পর্কে এই ধরনের নতুন নতুন তথ্য পাওয়ার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমাদের গুগোল নিউজ ফলো করে রাখুন। 

Leave a Comment

Thanks