পর্তুগালে নাগরিকত্ব পাওয়া খুবই সহজ জেনে নিন কিভাবে , এই প্রসঙ্গে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি সাজানো হয়েছে। পর্তুগল দেশটি অভিবাসীদের জন্য উপযোগী একটি দেশ এবং এই বিষয়টি পৃথিবীতে সকল জাতির মধ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে। 



কিন্তু সেই কথা শোনার সাথে সাথে আমাদের একটা বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখা দরকার যে শুধু সুযোগ দেওয়াটাই অভিভাষণ বলা যায় না এর জন্য অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ফলো করতে হয়। 


যখন আপনি যেকোন দেশে বসবাস শুরু করবেন একজন অভিবাসী হিসেবে তাহলে কাজের ক্ষেত্রে কতটুকু স্বাধীনতা পাবেন এবং স্বাস্থ্যসেবা চিকিৎসা ক্ষেত্রে নাগরিকত্ব লাভের ক্ষেত্রে কি কি সরকারি এবং সামাজিক নীতিমালা রয়েছে সেই সম্পর্কে আপনি একটি অগ্রাধিকার পাবেন। 


এখন সময় নেই মাইগ্রেট ইন্টিগ্রেশন পলিসি ইন্ডেক্স 2020 এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী পর্তুগালকে বিশ্বের তৃতীয় অভিবাসন বান্ধব দেশ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। 


মানুষের জীবন যাপনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে আটটি বাস্তবসম্মত এবং যৌক্তিক প্যারামিটার বিশ্লেষণের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে। 


পর্তুগালের জাতীয়তা গ্রহণের ক্ষেত্রে একটি উপযোগী একটি দেশ এবং পর্তুগালে একটি নীতিমালা প্রবর্তন করেছে যে যে কেউ পাঁচ বছর নিয়মিতভাবে যদি পর্তুগাল বসবাস করেন তাহলে পর্তুগিজ জাতীয়তার জন্য তিনি খুব সহজেই আবেদন করতে পারবেন। 


এবং খুব কম সময়ে সামান্য কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহের মাধ্যমে বিদেশীরা বা প্রবাসীরা খুব সহজেই পর্তুগিজের নাগরিকত্ব লাভ করতে পারবেন। 

পর্তুগালে নাগরিকত্ব পাওয়া খুবই সহজ উপায় জেনে নিন

পর্তুগালে যারা জন্মগ্রহণ করেছেন সেই সমস্ত ব্যক্তি স্বয়ংক্রিয়ভাবেই জন্মের সময় পর্তুগালের নাগরিকত্ব পেয়ে যান এবং অন্তত একজন পিতা মাতা পর্তুগিজ নাগরিক হলেও খুব সহজেই পর্তুগালের নাগরিকত্ব লাভ করেন। 


যারা পর্তুগালের নাগরিক নয় তাদের কাছে পর্তুগালের জন্মগ্রহণকারী ব্যক্তিরা জন্মের সময় নাগরিকত্ব লাভ করতে পারবে যদি তাদের পিতা অথবা মাতার যে কেউ একজন জন্মের আগে কমপক্ষে এক বছর পর্তুগালে বসবাস করেন অথবা তারা পর্তুগালে জন্মগ্রহণ করেন এবং এই দেশে বসবাস করেন জন্মের সময়। 


পর্তুগিজ পিতা-মাতার কাছে বিদেশে জন্ম গ্রহণ করেছে যে সমস্ত শিশুরা তাদের বংশের কারণে নাগরিকত্ব অর্জনের যোগ্যতা যদি তাদের থাকে তাহলে পর্তুগিজ কূটনৈতিক মিশন দ্বারা নির্বাচিত করা যায় এবং নিবন্ধন করার মাধ্যমে তারা পর্তুগালের নাগরিকত্ব লাভ করতে পারবেন। 


যদি পর্তুগীজদের নাগরিকদের নাতি এবং নাতনি দাঁড়াও তাদের প্রয়োজনীয় তার সাথে বংশভূত নাগরিকত্ব অর্জন করতে পারবেন এবং তাদের পর্তুগিজ হওয়ার অভিপ্রায় আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করতে হবে এবং জাতির সাথে যথেষ্ট সুসম্পর্ক বজায় আছে সেটা প্রমাণ করতে হবে এবং জাতীয় রেজিস্ট্রেশনে তাদের জন্ম নিবন্ধন করিয়ে নিতে হবে। 


একজন প্রকৃত পর্তুগিজ নাগরিক যদি অন্য দেশ থেকে কোন সন্তান দত্তক নেয় তাহলে সেই সন্তান খুব সহজেই পর্তুগিজের নাগরিক হতে পারবে। 


18 বছরের বেশি বয়সের ব্যক্তিরা যদি পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে পর্তুগালে বসবাস করে এবং পর্তুগিজ ভাষায় বিশেষ দক্ষতা অর্জন করতে পারে তাহলে সে পর্তুগালের নাগরিক হতে পারবে। 


এবং সর্বশেষ পর্তুগালে জন্মগ্রহণকারী যে সমস্ত ব্যক্তিরা রয়েছেন তাদের পিতা-মাতারা যদি পর্তুগালের নাগরিক হোন এবং সেই হিসেবে উত্তরাধিকারসূত্রে জন্মগ্রহণ করলে সে প্রকৃত ভাবে পর্তুগালের নাগরিকত্ব অর্জন করতে পারবেন। 

প্রিয় পাঠক আমাদের আজকের আর্টিকেলে পর্তুগালে নাগরিকত্ব পাওয়া খুবই সহজ উপায় সম্পর্কে কিছু তথ্য আলোকপাত করা হয়েছে বিভিন্ন দেশ সম্পর্কে জানতে এবং বিভিন্ন দেশের নাগরিকত্ব লাভের উপায় সম্পর্কে জানতে আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমাদের গুগোল নিউজ ফলো করে রাখুন। 

5th Page

Leave a Comment

Thanks