কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি

প্রিয় পাঠক আজকে আপনাদের সামনে আলোচনা করা হবে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন সম্পর্কে আমাদের মধ্যে এরকম অনেকেই রয়েছে যারা কিনা কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন করার জন্য ধন্য হয়ে গেছে কিন্তু কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন অনলাইনে কিভাবে আবেদন করতে হয় সে সম্পর্কে আমরা তেমন একটা ভাল না তাই আমাদের আজকের আর্টিকেলে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন সম্পর্কে খুঁটিনাটি সকল বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে চলুন তাহলে শুরু করা যাক। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন কি

নতুন নতুন কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন মূলত দেশের বেকারত্ব দূর করার জন্য একটি ঋণের ব্যবস্থা বেকারদের কে প্রদান করা হয়ে থাকে কর্মসংস্থানের জন্য দেশের বেকার বিশেষ করে শিক্ষিত বেকার রয়েছে সে বেকার যুবকদের আত্মকর্মসংস্থানে কর্মসংস্থান ঋণ প্রদান করা হয় যাতে এই শিক্ষিত বেকার পত্র ব্যবসায় করে তাদের জীবিকা নির্বাহ করতে পারেন এবং আত্মকর্মসংস্থানের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে তাই আমরা কথা বলতে পারি বেকার যুবকরা আত্মকর্মসংস্থানের জন্য যে ঋণ নিয়ে থাকে তাকে কর্মসংস্থান ব্যাংক ঋণ কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন বলা হয়ে থাকে এটা ব্যাংক কর্তৃক প্রদান করা হয়ে থাকে। 

ADS

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার জন্য মূলত একজন যুবককে অষ্টম শ্রেণী পাশ হতে হয় তবে বর্তমানে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত এই ঋণ প্রদান করা হয় আবেদনকারীকে বেকার বেকার হতে হয় এবং বয়স হতে হবে 18 থেকে 35 বছরের ভেতরে তবে বিশেষ বিবেচনায় 40 বছর বয়স পর্যন্ত এই আবেদন গ্রহণ করা হয় থাকে এছাড়া পেতে হলে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন সহ অন্যান্য সরকার অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান থেকে বেকারত্ব দূর করার জন্য আত্ম-কর্মসংস্থানের জন্য প্রশিক্ষণ নিতে হয় এবং একবার ঋণখেলাপি হলে পরবর্তীতে উক্ত ব্যক্তি ঋণ গ্রহণ করতে পারে না। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পেতে হলে আপনাকে প্রকল্প এলাকায় স্থায়ীভাবে বসবাসকারী হতে হবে এবং যার বাড়িঘর জমিজমা আছে এবং বিশেষ কোনো ঋণ পরিশোধে অক্ষম নয় এরকম একজন জামিনদার লাগবে আবেদনকারীর পিতা মাতা স্বামী-স্ত্রী অথবা তৃতীয় কোন ব্যক্তি হতে পারবেন জামিনদার একটি জেলার যেকোনো বাসিন্দা ওই জেলার আওতাধীন যে কোন শাখার উদ্যোক্তার ঋণের বিপরীতে একটি নিশ্চয়তা গ্যারান্টি দিতে পারবেন জামিনদার হতে যে কেউ পারবেন যেমন সরকারি অথবা বেসরকারি আধা-সরকারি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিগত ব্যক্তিবর্গ। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার উপায়

অনেক স্বপ্ন দেখেছি না গত কয়েক দশকে কর্মসংস্থানের জন্য ব্যাংক একটি রাষ্ট্র মালিকানাধীন একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান দেশের বেকারত্ব দূর করার জন্য যুবকদের কর্মসংস্থানের জন্য একটি অর্থনৈতিক সুবিধা প্রদান করার নামই হচ্ছে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন এটি হাজার 998 সালের 7 নং আইন দ্বারা কর্মসংস্থান ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয়। 


কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি 2022 সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের এই আর্টিকেলটি ফলো করতে পারেন। 


কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন এর প্রকারভেদ সমূহ

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন দেশের বেকারত্ব দূর করার জন্য একটি অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে তাই কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন এর প্রকারভেদ সমূহ নিচে উল্লেখ করা হলো। 


  • আত্মকর্মসংস্থান তৈরিতে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন কাজ করে থাকে 

  • এছাড়া যুবকদের আত্মনির্ভরশীল এবং স্বাবলম্বী করে তোলে কৃষিপণ্য এবং প্রক্রিয়াজাতকরণে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন কাজ করে থাকে 

  • কুটির শিল্প বিকাশ এবং প্রসারে উৎসাহ প্রদান করে থাকে 

  • দারিদ্র্য বিমোচনে কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন কাজ করে থাকে 

  • কর্মসংস্থান ব্যাংক জিডিপিতে বিশেষ অবদান রাখে

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের খাতসমূহ

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন উৎপাদনশীলতা এবং সেবা খাত এবং বাণিজ্যিক খাত থেকে আসে

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের উৎপাদনশীল খাতে লোন

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের উৎপাদনশীল খাতে লোন হচ্ছে মৎস লোন প্রাণিসম্পদ লোন শিল্প-কলকারখানা লোন ক্ষুদ্র এবং কুটির শিল্প লোন

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের মৎস্য উৎপাদন লোন সমূহ

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের মৎস্য উৎপাদন লোনসাম হল কার জাতীয় মাছ লোন মনোসেক্স তেলাপিয়া ভেটকি চিতল কই থাই কৈ সরপুঁটি ক্যাটফিশ গোয়ালপাড়া শিং মাগুর সিঙ্গী ইত্যাদি এবং রেনু পোনা উৎপাদন। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের প্রাণিসম্পদ লোন সমূহ

  • পোল্ট্রি ফার্ম,
  • গবাদিপশু মোটাতাজাকরণ,
  • দুগ্ধ খামার।

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের কি কি যোগ্যতা লাগে

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পেতে হলে কি যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন নিচে সেগুলো উল্লেখ করা হলো এই লোন গ্রহীতাকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে শাখার অধিকারের একজন স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে স্থায়ী বাসিন্দা যদি না হয় তাহলে একজন স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে আবেদনকারীকে অবশ্যই বেকার হতে হবে অথবা অর্ধ বেকার থাকতে হবে আবেদনকারীর সর্বনিম্ন 18 বছর হতে হবে এবং সর্বোচ্চ বয়স 50 বছর হতে হবে আবেদনকারীর প্রকল্প পরিচালনা অবশ্যই যোগ্যতা থাকতে হবে এক ব্যক্তি সর্বোচ্চ 25 লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন নিতে পারবে এবং 5 জনের একটি গ্রুপ লোন গ্রহীতা 5 জন হলে সর্বোচ্চ 50 লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন নিতে পারবে। 

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন এ কি কি কাগজপত্র লাগবে

কর্মসংস্থান ব্যাংক পেতে হলে আপনার নিম্নোক্ত কাগজপত্র গুলো অবশ্যই লাগবে একটি আবেদন ফরম লাগবে সত্যায়িত দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে গেরেনডার সত্যায়িত 2 কপি ছবি লাগবে আপনার ইউপি চেয়ারম্যান বা কাউন্সিলর থেকে একটি নাগরিক সনদপত্র লাগবে ট্রেড লাইসেন্স যদি থাকে তাহলে এসবের উপর লোন দেওয়া হলে সেগুলো লাগবে

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন আপনি কিভাবে নিবেন বা এই লোন নেওয়ার পদ্ধতি সমূহ

কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন নেওয়ার জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম আপনার আশেপাশে থাকা যেকোনো একটি কর্মসংস্থান ব্যাংকের শাখায় চলে যেতে হবে তারপর সেখানে গিয়ে লোন নেওয়ার জন্য আপনার আবেদন ফরমে একটি আবেদন করতে হবে এবং উপরে উল্লেখিত কাগজপত্রগুলো জমা দিয়ে আপনি বিশেষ বিবেচনার মাধ্যমে আপনি পেয়ে যাবেন খুব সহজেই

পরিশেষে আমরা উক্ত আর্টিকেলে আলোচনা করলাম কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পদ্ধতি, কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন কি ,কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন পাওয়ার উপায়, কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন এর প্রকারভেদ সমূহ, কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের খাতসমূহ ,কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের উৎপাদনশীল খাতে কি কি লোন আছে, কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের মৎস্যখাতে কি কি লোন রয়েছে, কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের প্রাণী সম্পদ রয়েছে ,এবং কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনের কি কি যোগ্যতা লাগে ,কর্মসংস্থান ব্যাংক লোন এ কি কি কাগজপত্র লাগবে ,কর্মসংস্থান ব্যাংক লোনে আপনি কিভাবে নিবেন এবং এই লোন নেওয়ার পদ্ধতি সমূহ বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে। ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment

Thanks